সমন্বিত শিক্ষা-সংস্কৃতি কার্যক্রম

 

কার্যক্রম পরিচিতি

ফুলকি গত চার দশকেরও বেশি সময় ধরে শিশুর মানবিক গুণাবলী লালন ও সৃজনশীল দক্ষতা বিকাশের জন্য কাজ করে আসছে। দীর্ঘ অভিজ্ঞতার আলোকে ব্যাপক নিরীক্ষার মাধ্যমে তৈরি হয়েছে স্কুল ছাত্রছাত্রীদের জন্যে মূল পাঠের সহায়ক পরিপূরক এই কর্মসূচি -‘সমন্বিত শিক্ষা-সংস্কৃতি কার্যক্রম’। ছোটদের মধ্যে কল্পনা ও চিন্তাশক্তির বিকাশ, তাদের সুকুমারবৃত্তি ও সুপ্ত প্রতিভার উন্মেষ সাধন, সভ্যতার পুরোধা ব্যক্তি ও অক্ষয় কীর্তিকথার সাথে তাদের পরিচয় ঘটানো এবং জীবন ও জগতের প্রতি ছোটদের মনে বিজ্ঞানমনষ্ক আগ্রহ সৃষ্টি এর প্রাথমিক লক্ষ্য। ছাত্রের ওপর অযথা কোনো রকম বাড়তি চাপ না দিয়ে বরং তার জন্য নানা কিছু দেখা, শোনা ও বোঝার এক আনন্দময় পরিবেশ তৈরিই এ কার্যক্রমের উদ্দেশ্য। ছাত্রছাত্রীরা আনন্দের সাথে যেটুকু জানবে ও করবে সেটাই হবে অনেক।

এ কার্যক্রমের অন্তর্ভুক্ত বিষয় -

  • বাংলা ভাষা ও সাহিত্য
  • চারু ও কারুকলা
  • সঙ্গীত
  • বিজ্ঞান ও পরিবেশ
  • অমর ব্যক্তিত্ব
  • অবিস্মরণীয় কীর্তি
  • অধিকার ও সুশাসন
  • নৈতিকতা ও মূল্যবোধ

ক. ভাষা সাহিত্যের আওতাভুক্ত থাকবে প্রত্যেক শ্রেণির নির্বাচিত সাহিত্য গ্রন্থ পড়া, নির্বাচিত চিরায়ত গল্প শোনা, নির্বাচিত চিরায়ত কাব্যপাঠ, মৌলিক সৃজনশীল রচনা, সুন্দর উচ্চারণ, আবৃত্তি ও সুশ্রাব্য পাঠের দক্ষতা অর্জন।

খ. চারু ও কারুকলার আওতাভুক্ত থাকবে স্বাধীনভাবে অঙ্কন, পরীক্ষামূলক অঙ্কন, বিভিন্ন মাধ্যমে কাজ, সৃষ্টিশীল কারুকর্ম ও হাতের কাজ। প্রকৃতিবিদ ও শিল্পীর নির্দেশনায় প্রকৃতি পর্যবেক্ষণ, চিরায়ত শিল্পকলার সাথে পরিচয়।

গ. সঙ্গীতের আওতাভুক্ত থাকবে নির্বাচিত ও নির্দিষ্ট সংখ্যক গান শেখা ও নির্বাচিত গান শোনা।

ঘ. বিজ্ঞান ও পরিবেশের আওতাভুক্ত থাকবে শ্রেণির বিজ্ঞান বিষয়ের ভিত্তিতে পাঠ, মৌল বিজ্ঞানের একটি-দুটি বিষয়, সমকালীন কোনো ইস্যু, পানি, গাছ ও প্রাণিসহ বৃহত্তর পরিবেশভিত্তিক বিষয়, মানবিক ও ভবিষ্যত দৃষ্টিসম্পন্ন সচেতনতামূলক পাঠ, ল্যাবভিত্তিক বিভিন্ন নিরীক্ষা।

ঙ. অমর ব্যক্তিত্ব পর্যায়ে প্রতি শ্রেণিতে নির্বাচিত দুজন বাঙালি ও দুজন বিশ্বমানবের জীবনকথা সংক্ষেপে জানবে। এ ছাড়া অমর ব্যক্তিদের জীবন থেকে মানবিক মূল্যবোধ জাগ্রত করে এমন দুচারটি করে ঘটনা জানবে।

চ. অবিস্মরণীয় কীর্তি পর্যায়ে সভ্যতার নিরিখে মানুষের গুরুত্বপূর্ণ সৃষ্টি ও কৃতি সম্পর্কে জানবে।

ছ. অধিকার ও সুশাসনে অধিকার আদায়ের সংগ্রামের ইতিহাস এবং জাতিসংঘের মানবাধিকার ঘোষণাসহ অধিকার, আইনের শাসন ও সুশানের সাথে সম্পৃক্ত বিষয় জানবে।

জ. নৈতিকতা ও মূল্যবোধ পর্যায়ে ঐতিহাসিক মহাপুরুষদের জীবন থেকে এমন সব ঘটনা জানবে যা উচ্চ নীতিবোধ ও মানবিক মূল্যবোধ অর্জনে সহায়ক হবে।

এছাড়া উচ্চারণ, পাঠ ও বাচন এবং অভিনয়ের সুযোগ তৈরি করা হবে। উপযুক্ত চলচ্চিত্র প্রদর্শনও থাকবে।

 

কার্যক্রমের উপকরণ(বইগুলোর ছবি সংযুক্ত করতে হবে)

এ কার্যক্রম গ্রহণকারী স্কুলের সংশ্লিষ্ট ছাত্রছাত্রীরা প্রত্যেকে অত্যন্ত সুলভ মূল্যে ব্যক্তিগতভাবে আকর্ষণীয় অনেক উপকরণ সংগ্রহ করতে পারবে। এর মধ্যে রয়েছে ঝরঝরে ভাষায় গল্পের আকারে লেখা বেশ কটি ছোট্ট আকারের বই -

  • মনীষী কথা-৪ জন মনীষীর (দুজন বাঙালি ও দুজন আন্তর্জাতিক) জীবনী।
  • গল্পসল্প-বাছাই করা গল্পের বই।
  • ছড়া-কবিতা-নির্বাচিত ছড়া-কবিতার বই।
  • বিজ্ঞানবিচিত্রা-বিজ্ঞান বিষয়ক পুস্তিকা।
  • কীর্তিকথা-মানুষের অর্জন ও অবদানের কথা।
  • অধিকার-অধিকার ও দায়িত্ব সম্পর্কিত বই।
  • মানবিকতা-ঐতিহাসিক মহামানবের জীবন থেকে মানবিক গুণাবলীর বই।
  • শ্রেণিভিত্তিক নির্বাচিত গানের বই।

এছাড়াও রয়েছে-

  • ২০ জন মনীষীর ছবির ছোট পোস্টার।
  • ১ টি উন্নতমানের ড্রয়িং খাতা।
  • ১ টি সংগ্রহ খাতা।
  • বিশ্ববিখ্যাত ৮টি ছবির রঙীন অনুলিপির প্যাকেট।

 

বিভিন্ন শ্রেণির উপকরণের মূল্যও খুব বেশি নয়। শ্রেণিভিত্তিতে প্রত্যেক ছাত্রের জন্যে তা হবে নিম্নরূপ:

  • প্রথম শ্রেণি -৭টি বই, ড্রয়িং খাতা ও ১৮জন মনীষীর ছবিসহ টা. ২৩৫.০০
  • দ্বিতীয় শ্রেণি - ৮টি বই, ড্রয়িং খাতা, ও ১৮ জন মনীষীর ছবিসহ টা. ২৪০.০০
  • তৃতীয়-চতুর্থ শ্রেণি - ৮টি বই, ড্রয়িং খাতা, ও ১৮ জন মনীষীর ছবিসহ টা. ২৫০.০০
  • পঞ্চম শ্রেণি - ৮টি বই, ড্রয়িং খাতা, ও ১৮ জন মনীষীর ছবিসহ টা. ২২৫.০০
  • ষষ্ঠ-অষ্টম শ্রেণি - ৮টি বই, ড্রয়িং খাতা, ও ১৮ জন মনীষীর ছবিসহ টা. ২৪০.০০

একজন ছাত্র বছরে একবার এই অর্থ ব্যয় করবে।

এছাড়া কেউ ইচ্ছা করলে সংগ্রহ খাতা (মূল্য টা. ২৫.০০) বিশ্বখ্যাত ৮টি রঙীন ছবির প্যাকেট (৪০.০০), গানের সিডি (৫০.০০) সংগ্রহ করতে পারে।

যেকোনো আয়োজনে শিশুদের জন্য উপহার হিসেবে এই বই ও উপকরণগুলো হতে পারে মনন ও গভীরতার রসদ।

কার্যক্রম পরিচালনা

সাধারণত ডিসেম্বরে এ কার্যক্রম গ্রহণে আগ্রহী স্কুলের সাথে যোগাযোগ করা হয়। প্রধান শিক্ষক ও শিক্ষকমন্ডলীর সাথে কার্যক্রম নিয়ে বৈঠক হয়। শ্রেণিকক্ষে কার্যক্রম-ভিত্তিক পাঠদানের জন্যে আমাদের রয়েছে প্রশিক্ষিত শিক্ষাকর্মীর দল (Educational Activists)। এরা সাধারণত স্থানীয় তরুণ-তরুণী যারা স্নাতক পর্যায়ে অধ্যয়নরত বা শিক্ষাজীবন সদ্য সমাপ্ত অথবা সমাপ্তির পথে। এ কাজকে দেশ ও সমাজের উন্নয়নের মহৎ কাজ হিসেবে গণ্য করে মূলত স্বেচ্ছাব্রতীর আদর্শেই তারা এতে যুক্ত হয়ে থাকে। নিয়মিত প্রশিক্ষণের মাধ্যমে তাদের যোগ্যতা ও দক্ষতা বৃদ্ধি করা হয়।

২০০১ সন থেকে এ কার্যক্রমটি দেশের বিভিন্ন জেলায় নির্বাচিত কিছু স্কুলে চালু আছে। ক্রমান্বয়ে এর আওতা বেড়েছে। শুরু থেকে ২৫টি জেলার প্রায় ৫০ এলাকায় শতাধিক বিদ্যালয়ে একার্যক্রম পরিচালিত হয়েছে।  বর্তমানে এটি চলছে চট্টগ্রাম, ঢাকা, নারায়ণগঞ্জের প্রায় পঁচিশটিরও অধিক স্কুলে। মূলত সরকারি-বেসরকারি প্রাথমিক ও হাই স্কুলেই এটি প্রচলিত আছে। বর্তমানে এ কার্যক্রমে অংশগ্রহণকারী ছাত্রসংখ্যা প্রায় দশ হাজার এবং শিক্ষাকর্মীর সংখ্যা প্রায় অর্ধশতাধিক।